লাকসামের মেয়র প্রার্থী প্রফেসর আবুল খায়ের এর পরিচিতি

লাকসাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী
প্রফেসর মোঃ আবুল খায়ের এর পরিচিতি

শিক্ষা জীবনঃ প্রাথমিক শিক্ষার গন্ডি পেরিয়ে গাজিমুড়া আলীয়া মাদ্রাসা থেকে কৃতিত্বের সাথে ১৯৮৮ সালে দাখিল পাশ করেন। নওয়াব ফয়েজুন্নেছা সরকারী কলেজ থেকে স্নাতক ও ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয় থেকে এম,এ ডিগ্রি লাভ করেন। আবুল খায়ের প্রায় ২০ বছর যাবত কলেজ শিক্ষকতার মত একটি মহান পেশায় জড়িত রয়েছেন। বর্তমানে নাঙ্গলকোট উপজেলা ভোলাইন বাজার কলেজে সহকারী প্রফেসর হিসেবে কর্মরত আছেন।

রাজনীতিতে প্রফেসর আবুল খায়েরের ভূমিকাঃ ছাত্র জীবন থেকে প্রফেসর আবুল খায়ের অত্যন্ত মেধাবী, স্পষ্টভাষী, সৎ ও নিষ্ঠাবান ছিলেন। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায় পারদর্শি প্রফেসর আবুল খায়ের লাকসাম শেখ রাছেল ক্রীড়া চক্রের একজন কৃতি খেলোয়ার ছিলেন। মাদ্রাসা পড়া অবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতিতে স্বক্রিয় হয়ে পরেন। পরবর্তীতে ন.ফ সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ ও লাকসাম উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্ব দেন। সর্বশেষ ঢাকা মহসিন হল শাখা ছাত্রলীগের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। দীর্ঘ দিন লাকসাম উপজেলা যুবলীগের রাজনীতিতে স্বক্রিয় প্রফেসর আবুল খায়ের বর্তমানে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন।

সফল ব্যবসায়ী প্রফেসর আবুল খায়েরঃ ছাত্র জীবন থেকে পারিবারিক ব্যবসা দেখাশোনার পাশাপাশি নিজের ব্যবসা সম্প্রসারন করেন। তিনি মেসার্স দি আমিন জুয়েলার্স, মেসার্স খাজা এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স মা এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স মা জেনারেল ষ্টোর এর স্বত্তাধিকারী। এছাড়া ও তিনি মোবাইল কোম্পানী রবি, ট্রান্সকম বেভারেজ লিমিটেড, রেকিট বেন কাইজার বাংলাদেশ লিমিটেড, আরলা ফুডস বাংলাদেশ লিমিটেড, প্রাণ গ্রুপ ও ট্রান্সকম কনজিউমার প্রোডাক্টস লিমিটেড এর পরিবেশক এ সকল প্রতিষ্ঠানে অনেক লোকের কর্ম সংস্থানের ব্যবস্থা হয়েছে। অধ্যাাপক আবুল খায়ের লাকসাম বাজার ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতা হিসেবে বেশ সু-পরিচিত। আবুল খায়ের লাকসাম, দৌলতগঞ্জ বাজার বনিক সমিতির নির্বাচিত ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও লাকসাম জুয়েলারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক।

লাকসামের উন্নয়নে প্রফেসর আবুল খায়েরের ভুমিকাঃ শান্তি, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের রূপকার, গণমানুষের নেতা, সৎ ও আদর্শবান রাজনীতিবিদ বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় এর স্থায়ী কমিটির সফল সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম এম.পিকে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করে প্রফেসর আবুল খায়ের লাকসামের উন্নয়নের ব্যাপক অবদান রেখে যাচ্ছেন।

Sharihotography-0344474

প্রিয় মা/বাবা/ভাই/বোন/বন্ধু,
আসসালামু আলাইকুম,
এ চিঠি মায়ের কাছে এক সন্তানের। বাবার কাছে পুত্রের। বোনের কাছে ভাইয়ের। পরিবেশের কাছে প্রতিবেশির। পৌরবাসীর কাছে একজন বন্ধুর।

এ চিঠি একটি পরিবারের গল্প। এই পরিবারকে ঘিরে আমাদের বসবাস। এ পরিবারের কত কত অভিযোগ। ভাল রাস্তা নেই, নেই ভাল টয়লেট, ড্রেন কিংবা হাটার মত সহজ পথ। ভাবি কত কি হতে পারতো! হতে পারতো কত ভাল কিছু। ময়লা নেই, মশা নেই, মাদক নেই, দূষণ নেই, নেই কোন ভয়। এমন ভাল পরিবেশ কি আমাদের পরিবার পাবে না?

পাবে না হবে না করেও তো আমরা এগিয়েছি এতোদুর। তাহলে আজ কেন হাল ছেড়ে দেব? কেন ভাববো কিছ্ইু হবে না আর? যে ভালবাসে সে কি এমন নির্বিকার দেখে যেতে পারে প্রিয়জনের অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ?

এ গল্প অন্য কারো নয় এ গল্প আমাদের পরিবারের। এ পরিবার আপনার, আমার, আমাদের। এ পরিবারের নাম লাকসাম পৌরসভা। যা আমাদের মুক্তিযুদ্ধে কেনা রক্তের দামে। তাই এটি শুধু চিঠি নয়, একটি সম্পর্কের গল্প। এ সম্পর্ক মানুষের সাথে মানুষের। বাড়ির সাথে বাড়ির, পৌরসভার সাথে পৌরবাসীর। পরিবারের মত এই পরিবেশে হেটে হেটে বড় হয়েছি আমি। শিখেছি জীবন আর কিছু নয়, অনেক গুলো সম্পর্ক। সম্পর্কগুলোকে ভালবাসা। ভাল না বাসলে যেমন সম্পর্ক বাচে না, পরিবার ও টিকে না, তেমনি পরিবেশও বাচে না।

তাই যখন প্রতিদিন এই পরিবারে আমরা মুখোমুখি হই, তখনই বুঝি, এই পরিবারে আজ যা সমস্যা, তা অন্য কারো নয়। অন্য কেউ এসে ঠিকও করে দেবে না। এ সমস্যা আমাদের। এর সমাধানও তাই আমাদেরই হাতে। দাড়াতে হবে আমাদেরই। যেমন দাড়ায় সাহসী মানুষ ভালোর জন্য, প্রিয়জনের জন্য।

আমি দাড়িয়েছি আপনাদের হয়ে, আপনাদের জন্য। আমাদের পৌরসভার সমস্যা চিহ্নিত। আসছে ৩০ ডিসেম্বর মেয়র নির্বাচন। আমার কাছে এ নির্বাচন শুধু নির্বাচন নয়, একটি পরিচ্ছন্ন-বাসপযোগী পৌরসভা গড়ার বার্তা, একটি সমাধান যাত্রা। সাথে থাকুন এ সমাধান যাত্রায়, ভোট দিন আমাকে। আপনার একটি ভোট এগিয়ে দিতে পারে এই সমাধান যাত্রা। তাই এই ভোট দেওয়া শুধু আমাকে নয়, আপনার নিজের স্বপ্নকেই এগিয়ে নেয়া। আপনার আমার স্বপ্নের মিলিত যাত্রার এখানেই হোক শুরু।
অশেষ শ্রদ্ধা ও সালাম।

ইতি
আপনার
(মোঃ আবুল খায়ের)

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।