শ্বশুড়ের টাকা ছিনতাই করল জামাই!

সৌরভ মাহমুদ হারুন ● বুড়িচংয়ে যৌতুক না দেওয়ায় মেয়ের জামাই ক্ষিপ্ত হয়ে শ্বশুড়কে পথরোধ করে ছোরাঘাতে জখম করে সঙ্গে থাকা ১লক্ষ ৭ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়।

রোববার দুপুরে এই ঘটনায় শ্বশুড় মো: আবদুল মুমিন মিয়া বাদী হয়ে জামাতা মো: শুক্কুর মিয়াকে আসামী করে বুড়িচং থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

আহত শ্বশুড় আবদুল মুমিন মিয়া জানায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের শংকুচাইল গ্রামের মৃত আবদুল করিমের ছেলে শুক্কুর মিয়া(৪০) এর সঙ্গে একই উপজেলার বাকশীমূল ইউনিয়নের মিরপুর গ্রামের মুমিন মিয়ার মেয়ে নুরজাহান বেগমের ১৬ বছর পূর্বে বিয়ে দেয়া হয়। বিয়ের পর থেকে শুক্কুর মিয়া তার স্ত্রী নুরজাহানকে যৌতুকের দাবীতে বিভিন্ন সময় শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে। একাধিক বার জামাতা শুক্কুর মিয়াকে মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে বিভিন্ন অংকের যৌতুক দিলেও তার মন ভরে নি। যৌতুক নিয়েও জামাতা তার মেয়ে নুরজাহানকে যৌতুকের দাবীতে প্রায় সময় নির্যাতন করত।

এতে অতিষ্ঠ হয়ে গত দুই-তিন বছর পূর্বে আবদুল মুমিন মিয়া তার মেয়ে নুরজাহানকে জামাতার ঘর থেকে নিজ বাড়ীতে (পিত্রালয়ে) নিয়ে আসে। এ ঘটনার জের ধরে জামাতা ক্ষিপ্ত হয়ে শ্বশুড় মুমিন মিয়াকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধমকি, ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে। গত শনিবার সকাল ১০টায় মুমিন মিয়া শংকুচাইল বাজারে অগ্রণী ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার জন্য যাওয়ার পথে জামাতা শুক্কুর মিয়া পথরোধ করে শুশ্বড়কে অকথ্য ভাষায় গাল মন্দ করে।

এসময় জামাতার সঙ্গে থাকা ডেগার বের করে শ্বশুড়কে এলোপাথাড়ি ছোরাঘাত করে এবং সঙ্গে থাকা ১লক্ষ ৭ হাজার টাকা লুট করে নেয়। মুমিন মিয়ার আত্ম চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে জামাতা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন মুমিন মিয়াকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এই ঘটনায় রোববার দুপুরে জামাতা শুক্কুর মিয়াকে আসামী করে একটি অভিযোগ বুড়িচং থানায় দায়ের করা হয়।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।