ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু চার লাখ টাকায় রফাদফা

নিজস্ব প্রতিবেদক ● লাকসামে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। ওই ঘটনায় রোগীর স্বজরাসহ বিক্ষুব্ধ জনতা হাসপাতাল ভাংচুর করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার বিকালে লাকসাম পৌরশহরের রংপুর পলি ক্লিনিক নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে। দফায় দফায় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় হাসপাতালে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ওই ঘটনার পর স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যস্ততায় চার লাখ টাকার রফাদফা হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার নরপাটি গ্রামের অহিদুর রহমানের স্ত্রী রংমালা বেগমকে (৫৫) গত শুক্রবার লাকসাম পৌরশহরে রংপুর পলি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। পরদিন শনিবার রাতে হাসপাতালের মালিক ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায় নিজেই রোগীর পাকস্থলিতে পাথর অপারেশন করেন। এরই মধ্যে রোববার বিকেলে রোগীকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। রোগীকে বাড়ি নিতে স্বজনরা হাসপাতালে আসলে ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায় নিজেই ওই রোগীকে একটি ইনজেকশন পুশ করেন। মুহুর্তের মধ্যে রংমালা বেগম বমি করে মৃত্যুর কোলে ঢুলে পড়ে। এতে রোগীর স্বজনরাসহ বিক্ষুব্ধ জনতা উত্তেজিত হয়ে দফায় দফায় হামলা চালিয়ে হাসপাতালের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। পরে ঘটনা নিয়ন্ত্রনে আনতে হাসপাতালে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এদিকে হামলার ভয়ে আগেই ওই হাসপাতালের মালিক ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায় পালিয়ে যায়।

নিহত রংমালার ছেলে রাসেল জানান, ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায়ের ভুল চিকিৎসায় তার মা মারা যান। পরে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদের মধ্যস্ততায় হাসপাতালের মালিক ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায় তাদের চার লাখ টাকা ক্ষতিপূরন দিয়েছেন।

নিহত রোগীর স্বজন ও স্থানীয়দের অভিযোগ, এর আগেও ওই হাসপাতালের মালিক ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায়ের ভুল চিকিৎসায় একাধিক রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে একই উপজেলার ইরুয়াইন গ্রামের আরবের রহমানের অন্তঃসত্বা স্ত্রীকে অপারেশন করাতে গিয়ে ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায়ের অবহেলায় ওই রোগী মারা যায়। ওই ঘটনায় দশ লাখ জরিমানা দিয়েছেন ডাক্তার যোগেশ চন্দ্র রায়। এছাড়াও অপারেশনের নামে কিডনি চুরি করে রোগীর মৃত্যুর ঘটনায়ও ওই ডাক্তারের লক্ষাধিক টাকা জরিমানা হয়েছে এর আগে। বারবার ওই হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা ও ডাক্তারের অবহেলায় একাধিক রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে ফুঁসে উঠছে এলাকাবাসী। মৃত্যুকুপে পরিনত লাকসামের রংপুর পলি ক্লিনিকটি বন্ধ করে দিয়ে ওই ডাক্তারের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।