বাস মালিকের পিটুনিতে চালকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক ● কুমিল্লায় বাস মালিকের পিটুনিতে মো. রুহুল আমিন নামে এক বাস চালকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঢাকার সায়েদাবাদ বাস টার্মিটালে এ পিটুনির ঘটনা ঘটলেও রবিবার রাতে কুমিল্লায় আনা পর ওই চালকের মৃত্যু হয়। নিহত ওই বাস চালক কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার মির্জানগর গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে।

নিহতের পারিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত রুহুল আমিন ঢাকা-কোম্পানীগঞ্জ সড়কের তিশা পরিবহন নামের বাসের চালক। সম্প্রতি ঢাকার সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল এলাকায় তার বাসটি একটি ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ওই বাসটির ৩টি গ্লাস ভেঙ্গে যায়। এ ঘটনায় ওই পরিবহনের পরিচালক এবং ওই বাসের মালিক জামান হোসেন ভুঁইয়া ওরফে খোকন ও তার ম্যানেজার পাত্তি খোকনসহ তাদের লোকজন সায়েদাবাদ বাস টার্মিটালে বাসের চালক রুহুল আমিনকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় অন্যান্য বাসের চালক ও শ্রমিকরা তাকে উদ্ধার করে আহত রুহুল আমিনকে কুমিল্লায় পাঠিয়ে দেয়।

বাস চালকের নিকটাত্মীয় শ্রমিক নেতা মনির হোসেন রোববার জানান, রুহুল আমিন গুরুতর আহত অবস্থায় বাড়িতে আসার পর সন্ধ্যায় তাকে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তিনি মারা যান।

এ বিষয়ে তিশা পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী মোবারক হোসেন চেয়ারম্যান জানান, ওই বাস চালক রুহুল আমিনের মৃত্যুর খবরটি আমরা জেনেছি। ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক তদন্ত করে এর সুষ্ঠু বিচার হওয়া দরকার।

এ বিষয়ে তিশা পরিবহনের চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, খোঁজ নিয়ে দেখব।

দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, পিটুনির ঘটনাস্থল ঢাকা হলেও দেবিদ্বার হাসপাতালে আনার পথে মারা গেছে রুহুল আমিন। তাই দেবিদ্বার থানায় জিডি করা হয়েছে। সোমবার লাশ কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হবে।