নিখোঁজের ২২ ঘণ্টা পর চুয়েট ছাত্রের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক ● নিখোঁজের ২২ ঘণ্টা পর চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ১৩তম ব্যাচের ছাত্র নাকিব মোহাম্মদ খাব্বাবের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

নাকিব কুমিল্লা নগরীর ইবনে তাইমিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মু. শফিকুল আলম হেলালের বড় ছেলে। তার গ্রামের বাড়ি জেলার বরুড়া উপজেলার গালিমপুর ইউনিয়নের ধনিশ্বর গ্রামে। নাকিবের বাবা পবিত্র হজ্ব পালনের জন্য বর্তমানে সৌদি আরব রয়েছেন। নাকিব সীতাকুণ্ডের গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতে বন্ধুদের সাথে সাগরে বেড়াতে গিয়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে নিখোঁজ হন।

জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে নাকিবসহ তার সাত/আটজন বন্ধু ব্যক্তিগত উদ্যোগে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের গুলিয়াখালী সৈকতে বেড়াতে যান। নাকিবের ছোট ভাই নাসিব মোহাম্মদ আরিফ ও মামা নাঈমুল বারী জানান, নাকিব তার বন্ধুদের নিয়ে ওই সৈকতে নৌকাযোগে ঘুরতে গিয়ে ঢেউয়ের কারণে পানিতে তলিয়ে যান। খবর পেয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল ও স্থানীয় জেলেরা। বুধবার দুপুর ১টার দিকে জেলেদের জালে তার লাশ পাওয়া যায়।

এদিকে বুধবার বিকেল ৪টার দিকে সীতাকুণ্ডের সাদেক মাস্তান উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে নাকিবের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে চুয়েটের শিক্ষক ও তার সহপাঠীরা অংশগ্রহণ করেন। পরে নাকিবের মরদেহ তার বাবার কর্মস্থল ও তার মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানস্থল কুমিল্লা নগরীর ইবনে তাইমিয়া স্কুল এ- কলেজে আনা হয়। কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় জানাজায় এ কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ তার সহপাঠী ও এলাকার শত শত মুসুল্লি অংশগ্রহণ করেন। বাদ এশা তাদের ঢাকাস্থ বাসভবনের পাশে তৃতীয় জানাজা শেষে আজিমপুর কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হবে বলে জানিয়েছেন নাকিবের ছোট ভাই নাসিব মোহাম্মদ আরিফ।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।