দেবিদ্বারে গৃহবধূ ও মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক ● দেবিদ্বার উপজেলায় পৃথক ঘটনায় চার সন্তানের জননী হালিমা আক্তার (৩৫) গলায় ফাঁস ও দাখিল পরীক্ষার্থী ফারজানা আক্তার (১৫) বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার রসূলপুর পূর্ব পাড়া গ্রামের মো. মোস্তফার স্ত্রী হালিমা আক্তার ও উপজেলার বড় কামতা ইউনিয়নের আশোরা গ্রামের মোবারক হোসেনের মেয়ে ফারজানা আক্তার।

রোববার রাতে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিকেল সাড়ে ৪ টায় উপজেলার রসূলপুর পূর্বপাড়া গ্রামে শশুর বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে গৃহবধূ হালিমা আক্তার। তার আত্মহত্যার কারণ জানাতে পারেনি স্থানীয়রা।

অপরদিকে শনিবার দিবাগত রাতে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে কামতা ইউনিয়নের দাখিল পরীক্ষার্থী ফারজানা আক্তার বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এসময় পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, পুলিশ মরদেহ দু’টি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পরে মৃত্যু সঠিক কারণ জানা যাবে বলেও জানান ওসি মিজানুর রহমান।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।