দেবিদ্বারে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ● দেবিদ্বারে পারিবারিক কলহের জের ধরে ইয়াসমিন আক্তার নামে সাত মাসের এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ করেছে তার পরিবার। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ওই গৃহবধূর স্বামী মোস্তফা আহমেদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। রবিবার রাতে দেবিদ্বার উপজেলার শিবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

নিহত গৃহবধূর পিতা কবির হোসেন জানান, ইয়াসমিন আক্তারের সঙ্গে শিবপুর গ্রামের মোস্তফার প্রায় এক বছর আগে বিয়ে হয়। যৌতুকের দাবিতে বিয়ের পর থেকেই ইয়াসমিনকে নির্যাতন করত তার স্বামী। ইয়াসমিনের গর্ভে মেয়ে শিশুর সংবাদ জানার পর তার উপর নির্যাতন আরও বেড়ে যায়। এর জের ধরেই রোববার রাতে ইয়ামিনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি তার পরিবারের।

খবর পেয়ে দেবিদ্বার থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ইয়াসমিনের মরদেহ উদ্ধার ও নিহতের স্বামী মোস্তফাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান জানান, খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী মোস্তফাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।