তৃণমূলের কর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণশক্তি -এমপি বাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক ● কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কুমিল্লা সদর আসনের এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেছেন, বঙ্গবন্ধু বাংলার গরীব-দুঃখী মানুষকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতেন। বঞ্চিত মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলতেন। ন্যায়ের প্রশ্নে কোন আপোষ করেননি। আমি বঙ্গবন্ধুর সেই আদর্শকে লালন করে শেখ হাসিনার রাজনীতি করি।  সততার সাথে কাজ করি। সংগঠনকে শক্তিশালী করতে কাজ করি। যৌবনের শ্রেষ্ঠ সোনালী সময়গুলি কাটিয়েছি কুমিল্লার মানুষের কল্যাণে। আমি যেন আওয়ামী লীগ করতে না পারি তারা বার বার ষড়যন্ত্র হয়েছে। সিটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমার আর নেত্রীর মাঝে দুরত্ব সৃষ্টির অপচেষ্টা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দীর্ঘ ২২ বছর পর আমার জন্মদিনে রাজনৈতিক জীবনে শ্রেষ্ঠ উপহার দিয়েছেন । মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব দিয়েছেন। ১২ এপ্রিলকে ঘিরে অনেকে দিবা স্বপ্ন দেখছিল। এখনো তারা ষড়যন্ত্রের থেকে বেরিয়ে আসতে পারেনি। কুমিল্লার তৃণমূল আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা অনেকে কমিটি দেখেছে। সম্মেলন দেখেনি। স্বাধীনতার পর এই প্রথম ইউনিয়ন পর্যায়ে সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি হচ্ছে। আওয়ামীলীগ একটি গণ-সংগঠন। তৃণমূলের কর্মীরই সংগঠনের প্রাণ। তৃণমূলের কর্মীরাই তাদের নেতৃত্ব নির্বাচন করছে। যোগ্য নেতৃত্ব আর তৃণমূলের পোড় খাওয়া কর্মীদের হাত ধরে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে কুমিল্লার আওয়ামীলীগ।

রবিবার সকালে আদর্শ সদর উপজেলার ১ নং কালিরবাজার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার এমপি এসব কথা বলেন ।

সকাল সাড়ে ১১ টায় ঐতিহ্যবাহী কমলাপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয় ১নং কালিরবাজার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। ইউপি চেয়ারম্যান ও সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক আলহাজ্ব মো.সেকান্দর আলী চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে সাংবাদিক এম.এইচ মনির ও সাবেক ছাত্রনেতা ফরহাদ হোসেন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের  আহবায়ক অধ্যাপক কাজী আবুল বাসার, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম রতন, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও মহানগর যুবলীগ নেতা আবদুল্লাহ আল মাহমুদ সহিদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান এড.আমিনুল ইসলাম টুটুল, ভাইস-চেয়ারম্যান তারিকুর রহমান জুয়েল, এড.হোসনেয়ারা বকুল, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক কাজী খোরশেদ আলম। বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুন, সিটি কাউন্সিলর মাসুদুর রহমান মাসুদ,পাচথুবী ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বাহালুল প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মো.আলমগীর হোসেন ঠিকাদার। এসময় মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা আবিদুর রহমান জাহাঙ্গীর, আবদুল আলিম কাঞ্চন, মহানগর শ্রমিকলীগ আহবায়ক এম.এ কাইয়ুম, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম-আহবায়ক এনামুল হক এনাম, মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক জহিরুল ইসলাম রিন্টু,যুগ্ম-আহবায়ক সাদেকুর রহমান পিয়াস, মহানগর ছাত্রলীগের আহবায়ক এম.এ আজিজ শিয়ানু সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডের নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে ব্যানার-ফেস্টুনে সজ্জিত হয়ে সম্মেলনে যোগ দেন। সুদৃশ্য নৌকা আকৃতির মঞ্চ সহ বর্নীল সাজে সাজানো হয় অনুষ্ঠানস্থল কমলাপুর স্কুল প্রাঙ্গন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কমলাপুর বালিকা বিদ্যালয় ও সৈয়দপুর বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে । ইউনিয়নের প্রধান সড়কে নির্মাণ করা হয় বর্ণাঢ্য তোড়ন। অনুষ্ঠানে  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের তিন সহ¯্রাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সেকান্দর চেয়ারম্যান সভাপতি, সেক্রেটারী ইউনুছ
আদর্শ সদর উপজেলার ১নং কালিরবাজার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে তিন বারের নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো.সেকান্দর আলীকে সভাপতি ও  বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী মরহুম হাজী ইব্রাহিম কন্ট্রেক্টর এর ছোট ভাই মো.ইউনুছ সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় অধিবেশনে  তাদের নাম প্রস্তাব করেন প্রধান অতিথি কুমিল্লা সদর আসনের এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার। এসময় বিপুল করতালির মাধ্যমে কাউন্সিলর ও ডেলিগেটরা কণ্ঠভোটে সর্বসম্মতি ক্রমে তাদের নির্বাচিত করেন। কমিটির বাকী নেতৃবৃন্দের নাম পরে ঘোষনা করা হবে বলে জানানো হয়।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।