চৌদ্দগ্রাম ও বরুড়ায় বিষপানে দুই আত্মহত্যা

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি ● চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় বিষপানে এক পল্লী চিকিৎসক ও বরুড়া উপজেলায় এক গৃহবধূর আত্মহননের খবর পাওয়া গেছে। শনিবার পৃথকভাবে ওই আত্মহত্যাগুলোর ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার আমানগন্ডা ইউনিয়নের শালুকিয়া গ্রামের মৃত ফটিক মিয়ার ছেলে পল্লী চিকিৎসক আলমগীর হোসেন (৩২) পরিবারের লোকজনের সাথে অভিমান করে নিজ বাড়িতেই বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি উপজেলার ঘোলপাশা ইউনিয়নের নারায়নপুর এলাকার পল্লী চিকিৎসক।

এ বিষয়ে শনিবার রাত ১০ টায় মুঠোফোনে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ফয়সাল জানান, আত্মহত্যার খবর পেয়েছি। পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, জেলার বরুড়া উপজেলার খোশবাস (উঃ) ইউনিয়নের দেওয়ান নগর গ্রামে বিষপান করে সুমি আক্তার (২০) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত সুমি আক্তার উপজেলার দেওয়ান নগর গ্রামের জাকির হোসেনের স্ত্রী।

জানা যায়, শনিবার সকালে পারিবারিক কলহের জের ধরে সুমি আক্তার বিষপান করে। বেলা সাড়ে ১১ টার সময় বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে ভর্তি করানো হয়। দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজম উদ্দিন বলেন, নিহত সুমি আক্তারের লাশ উদ্ধার করে থানায় রাখা হয়েছে। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।