চৌদ্দগ্রামে যৌতুক না দেওয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি ● চৌদ্দগ্রামে দাবিকৃত ২০ হাজার টাকা যৌতুক না দেওয়ায় সকিনা খাতুন লাকি নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্বামী মোজাম্মেল হোসেন রাজু প্রকাশ ভুট্টু। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। নিহত লাকি ফেনী সদর উপজেলার বারাইপুর গ্রামের মমিনুল হক পাটোয়ারীর মেয়ে।

জানা গেছে, ২০ বছর আগে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার চিওড়া ইউনিয়নের শাকতলা গ্রামের মৃত বদিউল আলমের পুত্র সিএনজি চালক মোজাম্মেল হোসেন রাজু প্রকাশ ভুট্টুর সাথে সকিনা আক্তার লাকির(৩৮) বিয়ে হয়। তাদের সংসারে দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। বিয়ের পর থেকে স্বামী ভুট্টু যৌতুকের জন্য লাকির উপর প্রায় সময় নির্যাতন করতো।

মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে তার বাবা-মা বিভিন্ন সময় আর্থিক সহযোগিতা করে আসছিল। বিগত কয়েকদিন যাবৎ সিএনজি অটোরিকশা মেরামতের জন্য ভুট্টু যৌতুক হিসেবে লাকিকে ২০ হাজার টাকা বাবার বাড়ি থেকে এনে দিতে বলে। চার সন্তানের জননী লাকি তার বাবার দ্বারা এ মুহুর্তে টাকা দেয়া সম্ভব নয় বলে জানালে তার উপর নেমে আসে নির্যাতনের ঝড়।

এক পর্যায়ে বুধবার বিকেলে সিএনজি চালক ভুট্টু নির্যাতন চালিয়ে লাকিকে হত্যা করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ রাতে লাশটি উদ্ধার করে আজ সকালে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় নিহত লাকির পিতা মমিনুল হক পাটোয়ারী বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ১১-ক ধারায় ঘাতক ভুট্টুকে আসামি করে চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি মামলা (নং-৯) দায়ের করে।

এ ব্যাপারে চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-অপারেশন) মোহাম্মদ হানিফ জানান, ‘লাকিকে হত্যার ঘটনায় স্বামী ভুট্টুকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। আসামি ভুট্টুকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ‘