কেমন হলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের স্কোয়াড

নিজস্ব প্রতিবেদক ● ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো বিপিএলে অংশ নিয়েই শিরোপা জয়- বাংলাদেশের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের শুরুটা দুর্দান্তই ছিল। তবে গত মৌসুমটি ভালো কাটেনি কুমিল্লার। বিপিএলের পঞ্চম আসরকে সামনে রেখে তাই তারকাবহুল দলই গঠন করেছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি।

শনিবার প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠানে সাতজন দেশি এবং দুজন বিদেশি খেলোয়াড় কিনে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। অবশ্য প্লেয়ার্স ড্রাফটের আগেই নিজেদের শক্তিশালী দল গঠনের কাজ এগিয়ে রেখেছিল দলটি।

প্লেয়ার্স ড্রাফটে কুমিল্লার কেনা সাতজন দেশি খেলোয়াড় হলেন- আল আমিন হোসেন, আরাফাত সানি, অলক কাপালী, মেহেদী হাসান, মেহেদী হাসান রানা, এনামুল হক, রকিবুল হাসান। বিদেশি খেলোয়াড় কোটায় জিম্বাবুয়ের সোলোমন মিরে এবং পাকিস্তানের পেসার রুম্মান রইসকে কেনে কুমিল্লা।

কুমিল্লার আইকন ক্রিকেটার হিসেবে রয়েছেন তামিম ইকবাল। বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে ইমরুল কায়েস ও লিটন দাসকে আগে থেকেই নিশ্চিত করে তৃতীয় আসরের চ্যাম্পিয়নরা।

বিদেশি খেলোয়াড়ের কমতি নেই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে। রুম্মান রইসের পাশাপাশি আরো চার পাকিস্তানি রিক্রুট রয়েছেন দলটিতে। এরা হলেন- শোয়েব মালিক, ফাহিম আশরাফ, ইমরান খান জুনিয়র ও হাসান আলি।

মারলন স্যামুয়েল ও ড্যারেন ব্রাভোর মতো টি-টোয়েন্টির বড় বিজ্ঞাপনরাও রয়েছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে। এছাড়া হালের জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি তারকা রশিদ খানকেও দলে ভিড়িয়েছে কুমিল্লা। রয়েছেন রশিদের জাতীয় দলের সতীর্থ আফগান অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী। সবমিলিয়ে শিরোপা জেতার মতো শক্তিশালী স্কোয়াডই গঠন করেছে কুমিল্লা।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের স্কোয়াড: ইমরুল কায়েস, তামিম ইকবাল, মারলন স্যামুয়েলস, ড্যারেন ব্রাভা, শোয়েব মালিক, জস বাটলার, লিটন দাস, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ নবী, রশিদ খান, হাসান আলি, ইমরান খান জুনিয়র, আল আমিন হোসেন, আরাফাত সানি, অলক কাপালী, মেহেদী হাসান, সোলোমন মিরে, রুম্মান রইস, মেহেদী হাসান রানা, এনামুল হক ও রকিবুল হাসান।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।