কুমিল্লায় স্বামী হত্যায় স্ত্রী ও পরকীয়া প্রেমিকের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক ● চার বছর আগে কুমিল্লায় স্বামীকে হত্যার দায়ে স্ত্রী ও তার পরকীয়া প্রেমিকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুুধবার দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৪র্থ আদালতের বিচারক নূর নাহার বেগম শিউলী এ রায় দেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার দক্ষিণ খার গ্রামের আক্তারুজ্জামানের স্ত্রী সালমা আক্তার ও একই উপজেলার ধামতী গ্রামের দুদ মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম।

বাদী পক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট আবুল বাশার জানান, ২০০০ সালে দেবিদ্বারের ধামতী গ্রামের খোকন মিয়ার মেয়ে সালমা আক্তারকে বিয়ে করেন আক্তার। বিয়ের পর তিনি সৌদিতে চলে যান তিনি। পরে তাদের একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। স্বামীর অনুপস্থিতিতে সালমা পাশের ধামতী গ্রামের নুরুল ইসলামের সাথে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় সালিশও হয়।

২০১৩ সালে আক্তার দেশে ফিরলে সালমা তাকে নিয়ে দেবিদ্বার সদরে বাসা ভাড়া নিয়ে চলে আসে। ওই বছরের ৪ নভেম্বর ভাড়া বাসায় আক্তারকে প্রেমিক নুরুল ইসলামসহ মাথায় আঘাত দিয়ে হত্যা করে সালমা। পরে স্বামী আক্তারের মৃত্যু স্ট্রোক বলে অপপ্রচার চালায়। এ নিয়ে প্রথমে অপমৃত্যু হলেও ময়নাতদন্তে মাথায় আঘাতের বিষয়টি উঠে আসে। পরে আক্তারের ভাই হানিফ সরকার বাদী হয়ে ২০১৪ সালের ০১ জানুয়ারি সালমা ও নুরুল ইসলামের বিরুদ্ধে দেবিদ্বার থানায় মামলা দায়ের করেন। সাক্ষী প্রমাণের ভিত্তিতে আজ আদালত দুইজনকে যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করেন।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।