কুমিল্লায় ছেলের মারধর সইতে না পেরে মায়ের আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক ● পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হলো বউ ও মায়ের মধ্যে। বাড়ি ফিরে বউয়ের কথা শুনে ছেলে গালমন্দ এমনকি মারধর করল মাকে। ছেলের এই অপমান-নির্যাতন সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন মিনুয়ারা বেগম (৫২) নামে কুমিল্লার বুড়িচংয়ের এক মা। শনিবার সকালে উপজেলার ষোলন ইউনিয়নের খাড়াতাইয়া গাজীপুর গ্রামে নিজের বাড়ির সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। মিনুয়ারা ওই গ্রামের ভূইয়া বাড়ির আবদুল হক ভূইয়ার স্ত্রী ছিলেন। তার ছেলের নাম সাইফুল ইসলাম।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শুক্রবার মিনুয়ারা বেগমের সঙ্গে তার ছেলের বউয়ের পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। রাতে সাইফুল কর্মস্থল থেকে বাড়িতে ফেরার পর তাকে বিষয়টি জানান স্ত্রী।

কিন্তু একতরফা বিবাদের খবর পেয়ে সাইফুল ক্ষিপ্ত হয়ে তার মা মিনুয়ারাকে গালমন্দ, এমনকি এক পর্যায়ে মারধরও করেন।

মিনুয়ারা বেগম বিষয়টি গ্রামের সর্দার ও বাড়ির লোকজনকে জানান। কিন্তু মারধর ও অপমান সহ্য করতে না পেরে শনিবার সকাল ৭টায় ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ করে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় রশি বেঁধে আত্মহত্যা করেন তিনি।

খবর পেয়ে দুপুরে বুড়িচং থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মিনুয়ারার মরদেহ উদ্ধার করে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে বুড়িচং থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু বক্কর সিদ্দিকী জানান, মিনুয়ারার আত্মহত্যার ঘটনায় দুপুরে একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।