কুমিল্লায় কিশোরীকে গণধর্ষণ

দেবিদ্বার প্রতিনিধি ● কুমিল্লায় এক কিশোরী (১৭) গণধর্ষণের শিকার হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৪ আগস্ট দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার ইউনিয়নের মরিচা গ্রামের মরম আলী সরকার বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে।

ধর্ষিতা কিশোরীর ফুফাতো রাবেয়া আক্তার ও দেবিদ্বার থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান বলেন, গত ১৮ জুলাই কুমিল্লার চান্দিনা থেকে দেবিদ্বারে ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে যায় এক কিশোরী । ৪ আগস্ট সন্ধ্যায় তাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান প্রতিবেশী সালমা বেগম। ওই দিন মধ্যরাতে স্থানীয় বখাটে সোহাগ ও মোমেন সালমার বাড়ি গিয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এরপর তাকে বাড়ির পুকুরপাড়ে জোর করে নিয়ে এসে আরো একজন ধর্ষণ করে।

ঘটনার পর গত মঙ্গলবার বাবার বাড়ি ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়ে কিশোরী। বিষয়টি জানার পর গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়ের মা তাকে নিয়ে ফুফুর গ্রামে যান এবং গ্রামবাসীর কাছে বিচার চান। খবর পেয়ে পুলিশ ওই দিন রাতে সোহাগের বাবা মফিজুল ইসলাম ভূঞা (৫৮) ও সালমা বেগমকে আটক করে।

ওসি আরো কুমিল্লার বার্তা ডটকমকে বলেন, এ ঘটনায় শনিবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মো. সোহাগ, আবদুল মোমেন ও সালমা বেগমের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো দুজনসহ মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়।