কুমিল্লায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ৩ লাখ টাকা ছিনতাই; আটক ৭

নিজস্ব প্রতিবেদক ● কুমিল্লা মহানগরীর শাকতলা এলাকায় মঙ্গলবার সকালে ৬/৭ জনের একদল অস্ত্রধারী ছিনতাইকারী অস্ত্রের মূখে ঢাকা শেরে বাংরা নগর গণপূর্ত বিভাগ-৩ এ কর্মরত নির্বাহী প্রকৌশলী স্বপন চাকমা’র কাছ থেকে নগদ ৩ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় তিনি রিক্সাযোগে জাঙ্গালীয়া আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালে যাচ্ছিলেন ঢাকায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে। পুলিশ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নগরীর বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে ৭ ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্র জানায়, নগরীর ধর্মসাগর পশ্চিম পাড়ের বাসা থেকে বের হয়ে মঙ্গলবার সকালে গণপূর্ত অধিদপ্তর কুমিল্লার সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী বর্তমানে ঢাকা শেরে বাংলা নগর গণপূর্ত বিভাগ-৩ এর নির্বাহী প্রকৌশলী স্বপন চাকমা মঙ্গলবার সকালে রিক্সাযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে নগরীর জাঙ্গালীয়া আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালে যাওয়ার পথে আনুমানিক ৬ টায় নগরীর শাকতলা এলাকায় বিসমিল্লাহ টাওয়ার নামের একটি ভবনের কাছে পৌঁছলে ৬/৭ জনের একটি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী অস্ত্রের মুখে রিক্সার গতিরোধ করে। পরে পিস্তল ঠেকিয়ে সাথে থাকা নগদ ৩ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়। খবর পেয়ে কুমিল্লা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাখাওয়াৎ হোসেন, সদর (সার্কেল) গোলাম আম্বিয়া, সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম, ইপিজেড ফাঁড়ির আইসি আব্দুল আজিজ ঘটনাস্থলে আসে।

পরে পুলিশ নগরীর বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে ৭ ছিনতাইকারীকে আটক করে। আটককৃতদের মধ্যে ৫ জনের নাম জানা যায়। তারা হলো, মুন্না (২০), ঈসমাইল (১৯), উজ্জল মিয়া (২৩), মোহাম্মদ আলী (২২) ও সফিক (২১)।

বিষয়টি জানতে ছিনতাইয়ের কবলে পড়া নির্বাহী প্রকৌশলী স্বপন চাকমার সাথে মোবাইলে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি কুমিল্লায় কর্মরত ছিলাম। সম্প্রতি ঢাকায় বদলী হয়েছি। ঢাকা যাওয়ার জন্য বাস টার্মিনালে যাওয়ার পথে আমি ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ি। তারা আমার কাছ থেকে অস্ত্রের মুখে ৩ লাখ টাকা নিয়ে যায়, তবে শারীরিকভাবে কোন ক্ষতিগ্রস্থ হইনি।

এদিকে রাতে এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দায়িত্বশীল একটি সুত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, ছিনতাই হওয়া কিছু টাকা উদ্ধার হয়েছে। এদিকে সদর দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলামের মোবাইলে একাধিক ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি।

তবে ইপিজেডফাঁড়ির ইন্সপেক্টর আব্দুল আজিজের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি কুমিল্লার বাইরে। পরে বিস্তারিত জানাবো।

স্থানীয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সুত্রে জানা যায়, প্রতিদিন গভীর রাত থেকে ভোর পর্যন্ত নগরীর জাঙ্গালীয়া আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল ও কুমিল্লা রেলওয়ে স্টেশন হয়ে আসা যাওয়া অসংখ্য যাত্রী শাসনগাছা, রেসকোর্স, বাগিচাঁগাও, ধর্মপুর পূর্ব চৌমুহনী, প্রফেসরপাড়া, অশোকতলা, টমসমব্রীজ, শাকতলা, জাঙ্গালীয়া ও পদুয়ারবাজার এলাকায় ছিনতাইকারীদের কবলে নগদ অর্থ, মোবাইল ফোন, স্বর্নালংকারসহ মূল্যবান মালামাল খোয়াচ্ছে।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।