কুমিল্লার বাস কাউন্টারগুলোতে উপচে পড়া ভীড়

নিজস্ব প্রতিবেদক ● ঈদুল ফিতরের ছুটি শেষ হয়েছে সেই কবে। তবে এখনো অনেকেই রয়ে গেছেন পরিবারের সাথে। আর তারাই রোববার অফিস ধরতে শেষ মুহুর্তে বাস কাউন্টারগুলোতে টিকেটের জন্য ভীড় করায় শনিবার দুপুর থেকেই কুমিল্লা থেকে ঢাকাগামী বিলাসবহুল এশিয়া, তিশা, রয়েল বাস টার্মিনালগুলোতে অস্বাভাবিক যাত্রীদের ভীড়। একই অবস্থা চট্টগ্রামসহ দেশের দক্ষিনাঞ্চলগামী বিভিন্ন জেলার লোকজনদেরও। শেষ মুহুর্তেও এই যাত্রায় বাস স্বল্পতায় তাই অনেক যাত্রীকে ঘন্টার পর ঘন্টা কুমিল্লা শাসনগাছা, জাঙ্গালীয়া, পদুয়ারবাজার বিশ্বরোড, চকবাজার আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালে ঘন্টার পর ঘন্টা দাড়িয়ে টিকেটের জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

কুমিল্লা থেকে রাজধানী ঢাকা সড়ক পথে রেলপথের তুলনায় অর্ধেক। এছাড়াও রেলওয়ের টিকেট সীমিত থাকার কারণে এই পথে চলাচলকারী অধিকাংশ মানুষই বাসের উপর নির্ভরশীল। এদিকে ঈদুল ফিতরের সরকারী ছুটি গত বুধবার শেষ হলেও অনেকেই আজ রোববার কর্মস্থলে ফিরে অফিস ধরার অপেক্ষায় বাড়িতে থেকে গেছেন। আর সেই সকল যাত্রীরাই শনিবার সকাল থেকে ঢাকায় যাওয়ার জন্য শহরের শাসনগাছা ও জাঙ্গালীয়া এলাকায় কুমিল্লা-ঢাকা-কুমিল্লা রুটে চলাচলকারী বিলাসবহুল এশিয়া লাইন, তিশা এক্সক্লুসিভ এবং রয়েল ট্রান্সপোর্ট কাউন্টারে ভীড় করে। একই অবস্থা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, বান্দরবানগামী যাত্রীদের বেলায়। ফলে বেলা যত বাড়তে থাকে কাউন্টারগুলোতে যাত্রীর সংখ্যাও বাড়তে থাকে অস্বাভাবিক। শহরের শাসনগাছা, চকবাজার, জাঙ্গালীয়া আন্তঃজেলা বাসটার্মিনাল ছাড়াও পদুয়ারবাজার বিশ্বরোড ও ময়নামতি সেনানিবাস এলাকায় মহাসড়কে হাজার হাজার যাত্রীকে গন্তব্যে পৌঁছতে চরম দুর্ভোগের কবলে পড়তে হয়।

বাসের তুলনায় যাত্রীর সংখ্যা অতিরিক্ত হওয়ায় বাস কর্তৃপক্ষেরও হিমসিম ক্ষতি হচ্ছে। ঈদের ছুটিতে কুমিল্লায় বেড়াতে আসা উজ্জ্বলা বিকেলে পরিবার নিয়ে ঢাকায় ফিরতে নগরীর জাঙ্গালীয়া আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালে যায়। তিনি বলেন, ৪টা থেকে বসে আসি স্বামী সন্তানদের নিয়ে। কিন্তু কোন টিকেট পাচ্ছিনা। একই কথা বললেন, নগরীর রেসকোর্স এলাকার রাজিব নামের এক কর্মজীবি।

তিনি বললেন, বিকেল ৩ টায় এসেছি। এখন প্রায় রাত ৮ টা বাজছে। গাড়িও নেই টিকেটও নেই। কাউন্টারে কথা হয় এক পরিবহন মালিকের সাথে। তিনি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, গাড়ির তুলনায় যাত্রী সংখ্যা কয়েক গুণ বেশী। আমরা আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে টিকেট দিচ্ছি।

তিনি বলেন, আমাদের গাড়িগুলো ঢাকায় যাত্রী নামিয়েই দ্রুত আবার কুমিল্লায় ফিরছে যাত্রীদের দ্রুততমসময়ে গন্তব্যে পৌঁছাতে।  তিনি আরো বলেন, রাত সাড়ে ৯ টা পর্যন্ত সকল ঢাকাগামী বাসের টিকেট বিক্রি শেষ।

এদিকে এশিয়া, তিশা, রয়েল ছাড়াও কুমিল্লা থেকে ঢাকা গামী অন্যান্য পরিবহনেও গন্তব্যে পৌঁছতে যাত্রীরা মরিয়া।

অনেকেই বলেন, টাকা সমস্যা না এমুহুর্তে ঢাকায় যত তাড়াতাড়ি যাওয়া যায় সেটার চেষ্টাই করছি। কেননা, আগামীকাল সকালে অফিস ধরতে হবে।

ঈদুল ফিতরের পর শনি ও রোববার মহাসড়কে যানবাহনের অতিরিক্ত চাপ থাকার সম্ভাবনা বিভিন্ন সুত্রে বলা হলেও শনিবার রাতে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মহাসড়কে যানবাহনের অতিরিক্ত চাপ থাকলেও যানজট ছিলনা।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।