কুবিতে শিক্ষকদের পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক ● কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের পক্ষে এবং বিপক্ষে আলাদাভাবে মানববন্ধন করেছে বিদ্যমান শিক্ষকদের দুটি গ্রুপ। বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে শিক্ষক সমিতির ব্যানারে এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদ (নন্দী-কামাল) প্যানেলের শিক্ষকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঁঠাল তলায় এ মানববন্ধন করেন ।

শিক্ষক সমিতির ব্যানারে উপাচার্যের কর্তৃক গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক মাহবুবুল হক ভূঁইয়া কে ষড়যন্ত্রমূলক সংঘবদ্ধ হয়রানির বিচার, শিক্ষক আসাদুজ্জামান কে লাঞ্ছিত এবং নিরাপদ কর্মস্থলের দাবিতে এ মানববন্ধন করেন।

এতে উপাচার্যের স্বেচ্ছাচারীতা এবং বিভিন্ন অনিয়মের কথা তোলে ধরে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতির নেতারা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মোঃ আবু তাহের,সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান, বঙ্গবন্ধু পরিষদ (আইনুল-জিয়া) প্যানেলের সভাপতি মোঃ আইনুল হক, সাধারণ সম্পাদক মোঃ জিয়া উদ্দিনসহ শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ।

অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে অসদাচরণ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বাধা, পরিকল্পনামন্ত্রী সম্পর্কে কটুক্তি, ইউজিসি চেয়ারম্যানের সাথে অসদাচরণ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রমে বাধা প্রদানকারী শিক্ষকদের বিপক্ষে মানববন্ধন করেছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ড. দুলাল চন্দ্র নন্দী এবং ড. কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন প্যানেলের শিক্ষকরা। পরিষদের নেতারা বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেক উপাচার্যের শেষ বছরে মুষ্ঠিমেয় কিছু শিক্ষক উপাচার্য কে হেনস্থা করার জন্য বিভিন্ন অনৈতিক দাবি নিয়ে উপাচার্যের কাছে যায় এবং উপাচার্য অনৈতিক দাবি আদায় না করলে সংঘবদ্ধ কিছু কুচক্রী মহল শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয় অস্থিতিশীল করে তোলে। তারই ধারাবাহিকতায় এই উপাচার্যের শেষ সময়ে আবারো সংঘবদ্ধ হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করার পায়তারা করছে।

এতে উপস্থিত ছিলেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ (নন্দী-কামাল) প্যানেলের সভাপতি ড. দুলাল চন্দ্র নন্দী,সাধারণ সম্পাদক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড.কাজী মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন, সহ-সভাপতি জাহিদুল আলম, আইকিউএসি এর পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সৈয়দুর রহমান,অতিরিক্ত পরিচালক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ্র দেবসহ পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।