আড়াই মাস পর অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার: অপহরণকারী আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক ● অপহরনের আড়াই মাস পর অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লা। এসময় অপহরণকারী অপহরণকারী মো: সাইফুল ইসলামকেও (২৫) আটক করা হয়। মঙ্গলবার রাতে তাদের দুই জনকে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার ইসলাম নগর এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়। আটককৃতদের বুধবার দুপুরে কুমিল্লার আদালতে পাঠানো হয়েছে। তবে অপহরণ নয় প্রেমের টানে তারা ঘর ছেড়েছেন বলে দাবী সাইফুলের পরিবারের।

পিবিআই কুমিল্লার পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক জানিয়েছে, জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার ছোট তুগুরিয়া গ্রাম থেকে লিজা নামের দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে গত ১৪ জুলাই কুমিল্লা নারী ও শিশু আদালতে ভিকটিমের মা অজিবা বেগম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটির তদন্তভার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লাকে দেয় আদালত। একপর্যায়ে তাদের খোঁজ পেয়ে ওই ছাত্রীসহ অপহরণকারীকে নারায়ণগঞ্জ থেকে উদ্ধার করে পিবিআই। উদ্ধারকৃত ভিকটিম লিজা (১৬) নাঙ্গলকোট উপজেলার ছোট তুগুরিয়া গ্রামের আলী আক্কাছের মেয়ে এবং অপহরণকারী মো: সাইফুল ইসলাম (২৫) জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার নাথের গজারিয়া গ্রামের দুধ মিয়ার ছেলে।

এদিকে, গ্রেফতার সাইফুলের পরিবার দাবি করেছে সাইফুলের সাথে ওই স্কুলছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। একপর্যায়ে তারা পারিয়ে গিয়ে বিয়ে করে। কিন্তু ছাত্রীর পরিবার এ বিয়ে মেনে নিতে পারেননি এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের হয়রানি করছে।

পিবিআই কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আপেল মাহমুদ জানান, আদালত মামলাটি তদন্তভার দেয়ার পর প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাদেরকে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থেকে ভিকটিম সহ অপহরণকারীকে সুস্থ্য অবস্থায় আটক করা হয়েছে। ভিকটিম ও অপহরণকারীকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

error: দুঃখিত কুমিল্লার বার্তার কোন কনটেন্ট কপি করা যায় না।