অভিযোগের ভিত্তিতে চৌদ্দগ্রামে হাসপাতাল বন্ধ ঘোষণা

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● চৌদ্দগ্রাম উপজেলায় লাইসেন্স না থাকায় ফ্যামিলি হসপিটাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার বন্ধ করে দিয়েছে জেলা সিভিল সার্জন। শনিবার দুপুরে কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে একটি টিম অভিযান চালিয়ে হসপিটালটি বন্ধ ঘোষণা করেন। চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নাছির উদ্দিন তথ্যটি কুমিল্লার বার্তা ডটকমকে নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, পল্লী চিকিৎসক দিলীপ চন্দ্র পাল ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম ট্রেনিং সেন্টারের পুরাতন কৃষি ভবনের দ্বিতীয় তলায় বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই ‘ফ্যামিলি হসপিটাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার’-এ চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল।

অভিযোগ উঠেছে, সেখানে অবৈধ গর্ভপাত, ডিএনসি, এমআর ও সিজারসহ বিভিন্ন অবৈধ কাজ করছিল। দীর্ঘদিন ধরে প্রাপ্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে শনিবার দুপুরে সিভিল সার্জন মুজিবুর রহমান ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নাছির উদ্দিন সেখানে অভিযান চালান।

অভিযানকালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার বৈধ কাগজপত্র বা লাইসেন্স দেখাতে না পারায় সেটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ইতোপূর্বে হাউজ বিল্ডিং এলাকায় কাগজপত্র বিহীন একটি ক্লিনিক দিয়ে অবৈধ কার্যক্রম পরিচালনার অভিযোগে প্রশাসন সেটি বন্ধ করে দেয়।