তামিমের অপেক্ষায় অলক কাপালি

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরের সিলেট পর্বে জয়শূন্য ছিল শুধু রাজশাহী কিংস। শনিবার রংপুর রাইডার্সকে হারিয়ে প্রথম জয়ের দেখা পাওয়া রাজশাহী আজই আবার মাঠে নামছে। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে আজ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচেই কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে লড়বে রাজশাহী। প্রথম ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংস মুখোমুখি হবে খুলনা টাইটান্সের।

সিলেটে হার দিয়েই বিপিএল শুরু করেছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। তবে দ্বিতীয় ম্যাচ জয়ের মুখ দেখেছিল দলটি। ঢাকায়ও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। গতকাল বিসিবি একাডেমি মাঠে অনুশীলনের পর অভিজ্ঞ ক্রিকেটার অলক কাপালি বলেছেন, আজো রাজশাহীর বিপক্ষে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চেষ্টা করবে কুমিল্লা। আজ দলে আইকন ক্রিকেটার তামিমকে পাওয়ার আশা করছে দলটি।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে বয়ে আনা উরুর চোট কাটিয়ে বিপিএলে আজ প্রথম ম্যাচ খেলতে পারেন তামিম। অলক কাপালি বলেন, ‘তামিমকে যে কোনো মুহূর্তে পাব। আজো (গতকাল) অনুশীলন করছে।’

শনিবার সন্ধ্যায় কুমিল্লার কোচ সালাউদ্দিন জানিয়েছেন, আজ তামিমের খেলার বিষয়টি নিশ্চিত নয় এখনো। তার ফিটনেস রিপোর্টের অপেক্ষায় আছে কুমিল্লার ম্যানেজমেন্ট।

এদিকে রাজশাহীর বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে অলক কাপালি বলেছেন, ‘আমাদের প্রথম ম্যাচটা খুব কাছে গিয়ে আমরা হেরেছি। পরের ম্যাচে আমরা দারুণভাবে কামব্যাক করেছি। দ্বিতীয় ম্যাচটা আমরা যেভাবে খেলেছি, লক্ষ্য থাকবে সেভাবেই সামনের ম্যাচটা খেলতে।’

সিলেটে নিজেদের মেলে ধরতে না পারলেও ঢাকায় স্থানীয় ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স দেখার আশা করছেন অলক কাপালি। তিনি বলেন, ‘এটা তো চেনা উইকেট, আমার মনে হয় স্থানীয় খেলোয়াড়রা এখানে ভালো করবে। সবাই ভালো অবস্থায় আছে, সুযোগ পেলে তারা ভালো করবে।’

বিপিএলের পঞ্চম আসর চলছে বাংলাদেশে। তারপরও আন্তর্জাতিক টি-টোয়োন্টিতে বলার মতো উন্নতি করতে পারেনি বাংলাদেশ জাতীয় দল। অলক কাপালি বলছেন, টি- টোয়েন্টিতে উন্নতি করতে হলে বেশি বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে হবে।

শনিবার অভিজ্ঞ এ ব্যাটসম্যান বলেছেন, ‘আমার মনে হয় যে, বিদেশি প্লেয়ার বেশি খেলছে। এ কারণে স্থানীয় খেলোয়াড়রা খুব বেশি সুযোগ পাচ্ছে না। বলা হচ্ছে যে, তাদের সঙ্গে খেলে আমাদের অভিজ্ঞতা হবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো আমাদের অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে। এখন আমরা যত বেশি টি-টোয়েন্টি খেলব, তত বেশি ভালো করার সম্ভাবনা বাড়বে। টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আমাদের কম খেলা হচ্ছে।’

অলক কাপালির মতে, এবার একাদশে পাঁচ বিদেশি খেলানোর ফলে কি ক্ষতি হচ্ছে তা সবাই দেখতে পাচ্ছে। আগামী আসরের আগে বিসিবি নিশ্চিতভাবেই পাঁচ বিদেশির খেলার বিষয়ে ভেবে দেখবে।