কুমিল্লায় স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে হত্যা; যুবলীগ নেতাসহ আটক ৪

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● নিখোঁজের ৭ দিন পর নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার চাটগাঁও ইউনিয়নের একটি পুকুর থেকে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের স্বর্ণ ব্যবসায়ী নিতাই দেবনাথের মরদেহ উদ্ধার করেছে লাকসাম থানা পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে লাকসাম পৌর এলাকার ৭ নং ওয়ার্ডের যুবলীগের সহ-সভাপতি ছায়েদুল হক জুয়েলসহ চার জনকে আটক করেছে লাকসাম থানা পুলিশ ।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চাটখিল থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত স্বর্ণ ব্যবসায়ী নিতাই দেবনাথ জেলার দেবিদ্বার উপজেলার সাইতলা গ্রামের নারায়ন দেবনাথের ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে লাকসাম পৌর শহরের সোহাগ মৎস খামারের ভিতরে কাজী আবদুর রশিদের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করছিলেন। নিতাই কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার আশিরপাড় বাজারে স্বর্ণ ব্যবসা করতেন।

স্থানীয় সূত্র জানান, গত ৭ ফেব্রুয়ারী বিকেলে লাকসাম পৌর শহরের ভাড়া বাসা থেকে নিজ ব্যবসায়ি প্রতিষ্ঠানে যাবার পথে ওই ব্যবাসায়ি নিখোঁজ হয় বলে তাঁর পরিবার জানায় ।

ওই দিন রাতে ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীর ভাই গৌরাঙ্গ দেবনাথ লাকসাম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

এ বিষয়ে লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে লাকসাম পৌর এলাকার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের যুবলীগের সহ সভাপতি ছায়েদুল হক জুয়েলসহ চার জনকে আটক করা হয়েছে।

তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বুধবার সকালে নোয়াখালির চাটগাঁও ইউনিয়ন থেকে নিতাই দেবনাথের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ বিষয়ে বিস্তারিত পরে জানাবো হবে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।