কুমিল্লায় কয়েক দফায় সংঘর্ষে আহত ৩, আটক ১০

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার পূর্ণমতি গ্রামে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে মধ্যপাড়া এবং পশ্চিমপাড়ার মধ্যে কয়েক দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) এ সংঘর্ষে গ্রাম পুলিশসহ ৩ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ১০ জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার সদর ইউনিয়ন পূর্ণমতি গ্রামে যুবকদের উদ্যোগে গত মঙ্গলবার স্থানীয় মাঠে ক্রিকেট খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

খেলা চলাকালীন মধ্যস্থ সময় মধ্যপাড়ার মন্টু মিয়ার ছেলে পিচ্চি রাসেল এবং পশ্চিমপাড়ার সোহেল মিয়ার মধ্যে ঝগড়া বাধলে এলাকার সাহেব সর্দাররা মিমাংসা করে দেয়।

মিমাংসা করা পরও তাদের মধ্যে হিংসা প্রতিহিংসা গুঞ্জণ চলতে থাকে ধীরে ধীরে ব্যাপক আকার ধারণ করে। তারপর মধ্যপাড়া ও পশ্চিমপাড়ার মানুষ দুইটি দল বাধে বুধবারও ঝগড়া হয় এরপর দিন বৃহস্পতিবার পূর্ণমতি বাজারে দুই দলের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। ঘটনাস্থলে গ্রাম পুলিশ আনোয়ার হোসেন কনু (৬২), মৃত ফজলুল হকের ছেলে আবুল কালাম এবং দোকানদার খোয়েজ আলীর ছেলে মাসুদ আহত হয়।

এই ব্যাপারে ঘটনার বিস্তারিত মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে স্থানীয় মেম্বার আমিনুল ইসলাম মিটিং আছে বলে কল কেটে দেয়।

বুড়িচং থানার ওসি মনোজ কুমার দে জানান, আমি এই ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে আমাদের পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনে ঘটনায় জড়িত থাকা ১০ জনকে থানায় নিয়ে আসি।

ঘটনাস্থলে বুড়িচং থানার এসআই ইখতিয়ার হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। ঘটনাস্থল থেকে পূর্ণমতি গ্রামের হাজী রোস্তম খান ভূইয়ার ছেলে আনিছুর রহমান, একই গ্রামের ইয়াকুব আলীর ছেলে আবুল হোসেন, মোঃ নজির মিয়ার ছেলে রাসেল, জসিম খানের ছেলে শাকিব, রাজ্জাক খানের ছেলে রাসেল খান, মুশরাত আলীর ছেলে মুমিন মিয়া, জগতপুর গ্রামের ডাক্তার আনিছুর রহমানের ছেলে ইফরান, পূর্ণমতি মতিন মিয়ার ছেলে আনিছ, ফিরোজ মিয়ার ছেলে সালাহঊদ্দিন, আইয়ুব আলীর ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলমকে আটক করে বুড়িচং থানায় নিয়ে আসে।