কুমিল্লায় বাসে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে মৃত্যু

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লায় চলন্ত বাসে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে আহত হোটেল বার্বুচী দুলাল মিয়া (৪৫) কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন। এদিকে রবিবার রাতে চিকিৎসার অবহেলার অভিযোগ নিয়ে প্রতিবাদ করায় নিহতের পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে মারধর করেছে কুমেক হাসপাতালের ইর্ন্টাণি চিকিৎসকরা সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ নিহতের স্বজনদের।

রোববার (৪ ফেব্রুয়ারী) রাত ১১ টার দিকে কুমেক হাসপাতালে বার্বুচী দুলাল মিয়ার মৃত্যু হয়। ওই সময় নিহতের স্বজনদের মারধর করার অভিযোগ উঠে।

নিহত দুলাল মিয়া কুমিল্লা নগরীর কাপ্তানবাজার এলাকার বাসিন্দা। তিনি নগরীর নজরুল এভিনিউ রোডের উৎসব হোটেলের বার্বুচী ছিলেন।

প্রবাসী ব্যবসায়ী সাকিব জানান, দুলাল মিয়া সকালে বরুড়া যাওয়ার সময় অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে আহত হয়। এ সময় স্থানীয়রা তাকে কুমেক হাসপাতালে নিয়ে আসে। রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহতের আত্মীয়-স্বজনরা জানান, হাসপাতালে যথোপযুক্ত চিকিৎসা না দেওয়ার বিষয়টি আমার চিকিৎসকদের কাছে জানতে চাই। এ সময় ইর্ন্টানি চিকিৎসকরা নিহতের ছোট ভাই জালালসহ কয়েকজনকে মারধর করে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

কোতয়ালী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ সালাহ উদ্দিন জানান, অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। আমরা হাসপাতালে রয়েছি। পরিস্থিতি শান্ত। পরে বিস্তারিত জানাবো।