কুমেকে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ, ৫২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ৫২ জনের বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। শনিবার কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. জাহাঙ্গীর হোসেন ভূঁইয়া বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এ মামলায় গ্রেফতারকৃত দুই আসামি রিয়াদ হোসেন ও সৌমিত্র আচার্যকে শনিবার সন্ধ্যায় আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আবদুল হান্নান ও হাবিবুর রহমান পলাশ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। দফায় দফায় সংঘর্ষে অন্তত ১৬ জন ছাত্র আহত হয়।

এদের মধ্যে গুরুতর আহত কলেজের ২৩তম ব্যাচের ছাত্র তৌফিকুল ইসলাম ও ইরফানুল হক রুপুকে শুক্রবার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে তৌফিককে এ্যাপোলো হাসপাতালের আইসিইউতে নেয়া হয়। শনিবার বিকাল পর্যন্ত তৌফিক আহমেদ ওই হাসপাতালের আইসিইউতে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

এদিকে এ ঘটনায় কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. জাহাঙ্গীর হোসেন ভূঁইয়া বাদী হয়ে কলেজের বিভিন্ন বর্ষের ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ৩৫ জনসহ ৫২ জনের বিরুদ্ধে কুমিল্লা কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সালাউদ্দিন আহমেদ জানান, এ ঘটনায় ৫২ জনের বিরুদ্ধে কোতয়ালী থানায় মামলা হয়েছে। মামলার আসামি রিয়াদ হোসেন ও সৌমিত্র আচার্যকে গ্রেফতার করার পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।