কুমিল্লায় ডিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লার দেবিদ্বারে ডিবি পুলিশের সাথে কথিত বন্ধুক যুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে পাঁচ পুলিশ সদস্য। শনিবার ভোরে দেবিদ্বার উপজেলার হাতিমারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ডিবি পুলিশের এক উপ পরিদর্শক ও চারজন কনস্টেবলসহ পাঁচজন আহত হয়। এ সময় পুলিশ আরো পাঁচ ডাকাতকে আটক করে।

লাশগুলো উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ডিবি পুলিশের ওসি মনজুর আলম কুমিল্লার বার্তা ডটকমকে জানান, শনিবার ভোর রাতের দিকে দেবিদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের হাতিমারা এলাকায় একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় ডাকাত সদস্যরা, পুলিশও ডাকাতদের পাল্টা গুলি করে। এক পর্যায়ে রাসেল ও ফারুক নামের দুই ডাকাত নিহত হয়। তাদের বিস্তারিত পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য- সর্বশেষ গত সোমবার রাতে সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি মো. শাহ আলমের কুমিল্লার দেবিদ্বারের জাফরগঞ্জের গ্রামের বাড়িতে সশস্ত্র ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতদের হামলায় তাঁর ছোট ভাই জহিরুল ইসলাম গুরুতর আহত হন।

ডিআইজির ছোট ভাই জহিরুল ইসলাম

রাতে পৌনে ৩টার দিকে ১০/১২ জনের ডাকাতদল বাড়ির গেইট টপকিয়ে ও পরে দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে ওই ডিআইজির ছোট ভাই জহিরুল ইসলামকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে।

পরে বাসা থেকে স্বর্ণালংকারসহ কিছু মালামাল লুটে নেয় ডাকাত দল।