কুমিল্লায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে অমানুষিক নির্যাতন

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লার হোমনায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে মা ও সন্তানদের সামনে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগে ইউপি সদস্যসহ ৬ বখাটের বিরুদ্ধে হোমনা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় শরীফ নামে একজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। বখাটেরা ওই প্রবাসীর স্ত্রীর শরীরের কাপড়-চোপড় খুলে মোবাইলে ছবি ধারণ করারও অভিযোগ রয়েছে।

জানা যায়, বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ছলিমাবাদ ইউনিয়নের ঝুনারচর গ্রামের প্রবাসীর স্ত্রী তার ৩ সন্তান ও মাকে নিয়ে গত ১৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকালে হোমনা উপজেলার চান্দেরচর ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর আড়ালিয়া গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে আসে।

ওই দিন রাত দেড়টার দিকে স্থানীয় একদল বখাটে জোর করে ঘরে প্রবেশ করে ওই গৃহবধূকে টানা হেচড়া করে শ্লীলতাহানি ঘটায় এবং তার কানের, গলার স্বর্ণলঙ্কারসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এসময় ওই গৃহবধূ বখাটেদের চিনে চিৎকার করলে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার ফয়সাল আহমেদ রিফাতের সঙ্গে সাদ্দাম হোসেন, ফারুকসহ বখাটেরা ঘটনাস্থলে আসে এবং ঘটনা নিষ্পত্তি করার প্রলোভনে রিফাত মেম্বার ও সাদ্দাম তাকে ওই গৃহবধূকে কুপ্রস্তাব দেয়। তাদের কুপ্রস্তাবে রাজি না হলে বখাটেরা শরীরের কাপড়-চোপড় খুলে মোবাইলে ছবি ধারণ করে।