কুমিল্লায় শিশু হত্যার ঘটনায় সৎ মা ও মামা আটক

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লার চান্দিনায় নিখোঁজের একদিন পর শিশু সুবর্ণা আক্তার মীমের (৭) মরদেহ উদ্ধার ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহত মীমের মা খাদিজা আক্তার সিমু। এ ঘটনায় নিহত মীমের সৎ মা লাভলী আক্তার (৩৫) ও তার ছোট ভাই দেবিদ্বার উপজেলার বাগুর গ্রামের মোস্তফা সরকারের ছেলে সালাউদ্দিন সরকারকে (৩২) আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চান্দিনা পৌরসভাধীন বেলাশহর এলাকার সাবেক পুলিশ সদস্য কোরবান আলী বহুবিবাহে আবদ্ধ। এর মধ্যে খুলনা জেলার খাদিজা আক্তার সিমুকে বিবাহ করার পর তাদের ঔরশে সুবর্ণা আক্তার মীম জন্মের কয়েক বছর পর তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। পরে পাশ্ববর্তী উপজেলাধীন বাগুর গ্রামের জনৈক মোস্তফা সরকারের মেয়ে লাভলী আক্তারকে বিবাহ করে কোরবান আলী।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চান্দিনা থানার উপ-পরিদর্শক ডালিম কুমার মজুমদার জানান, নিহত শিশু মীম এর মা খাদিজা আক্তার সিমুর দায়ের করা মামলায় তাদের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আসামী করে মামলা দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করা হয়েছে। শনিবার তাদেরকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার পর থেকে শিশু মীমকে খোঁজে পাচ্ছিলনা তার পরিবার।

সন্ধ্যায় শিশু মীমের পিতা কোরবান আলীর মোবাইল ফোনে এক ব্যক্তি ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। পরদিন বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে পাশ্ববর্তী গ্রামের থানগাঁও ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় গলায় ওড়না প্যাচানো অবস্থায় শিশু মীম এর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।