আজ জয় পেতে মরিয়া কুমিল্লা-খুলনা

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● বিপিএলের শেষ চারে কারা খেলছেন, তা নিশ্চিত হয়ে গেছে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, ঢাকা ডায়নামাইটস, খুলনা টাইটান্স ও রংপুর রাইডার্স শেষ চারে খেলছে। প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নিতে হচ্ছে চিটাগং ভাইকিংস, সিলেট সিক্সার্স ও রাজশাহী কিংসকে। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা কুমিল্লার দুটি ম্যাচ বাকি রয়েছে। ১০ ম্যাচে ৮টি জয়ে তাদের অর্জন সর্বোচ্চ ১৬ পয়েন্ট।

আজ প্রথম ম্যাচে কুমিল্লার প্রতিপক্ষ খুলনা টাইটান্স। ১৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে তারা। অপর ম্যাচে সান্ত¡না জয়ের আশায় লড়বে রাজশাহী ও চিটাগং। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করতেই মাঠে নামবে তামিম ইকবালের দল কুমিল্লা। তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেওয়ার ম্যাচ। কুমিল্লার ওপেনার ইমরুল কায়েস জানান, প্রত্যেকটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। ম্যাচে হেরে গেলে আত্মবিশ্বাস কমে যায়। তাই দলের লক্ষ্য থাকবে জয়ের দিকেই। শেষ চারের ম্যাচে মাঠে নামার আগে জয়ের ছন্দে থাকার প্রত্যয় কুমিল্লার দলের।

এবারের বিপিএলের সবচেয়ে তারকাসমৃদ্ধ দল ঢাকা ডায়নামাইটস। এর পর রংপুরের দলে ক্রিস গেইল ও ব্রেন্ডন ম্যাককালাম বাড়তি আকর্ষণ। কিন্তু সেভাবে তারকাখচিত দল না হলেও বিপিএলে ছন্দে কুমিল্লা। ইমরুল জানান, পরিকল্পনায় খেলেন তারা। দল জয় পেলে এমনিতেই আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। দলে যারা বিদেশি খেলোয়াড় রয়েছেন, তাদের সঙ্গে দেশি খেলোয়াড়দের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক হয়ে গেছে। এতে দল ভালো করছে।

পয়েন্ট টেবিলে এক বা দুই নম্বরে থাকতে পারলে বিপিএলের কোয়ালিফাই রাউন্ডে খেলার সুযোগ পাবে দল। শীর্ষস্থান নিশ্চিত করেছে কুমিল্লা। দুই নম্বর অবস্থান নিয়ে লড়াই জমে উঠেছে ঢাকা, খুলনা ও রংপুরের মধ্যে। এ জন্য প্রথম রাউন্ডের শেষ ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ তাদের জন্য। তাই আজ কুমিল্লার বিপক্ষে জয়ের লক্ষ্যে মাঠে নামবে খুলনা। আজকের ম্যাচ নিয়ে খুলনার ব্যাটসম্যান আরিফুল হকের ভাবনা, ‘এক কিংবা দুই নম্বরে থাকার জন্য জয়ের বিকল্প নেই। আমরা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবো। আশা করি, আগের দুই ম্যাচের চেয়ে ভালো খেলতে পারবো।’

উইকেট নিয়ে অবশ্য চিন্তিত ব্যাট হাতে খুলনাকে তিনটি জয় এনে দেওয়া আরিফুল, ‘উইকেট নিয়ে আমরা কিছুটা উদ্বিগ্ন। উইকেটটা বেশ স্লো মনে হচ্ছে। এর আগে যখন ঢাকায় খেলেছিলাম, তখন বল ভালোভাবে ব্যাটে এসেছিল। কিন্তু এখন অনেক নিচু হয়ে আসছে, তাই বলে হিট করা কঠিন হয়ে পড়ছে।’

রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে গত ম্যাচে তাকে যখন দলের প্রয়োজন, ঠিক তখনই আউট হয়ে যান আরিফুল। ওই ম্যাচের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামীতে জ্বলে ওঠার প্রতিজ্ঞা তার কণ্ঠে, ‘আমি আউট হওয়ার আগে ১২ বলে ২৫ রান প্রয়োজন ছিল দলের। আমার লক্ষ্য ছিল, অন্তত তিনটি ছক্কা মারা, কিন্তু পারিনি। ভবিষ্যতে এমন পরিস্থিতিতে সফল হওয়ার চেষ্টা করবো। গত ম্যাচে ব্যর্থ হলেও আগামীতে সফল হবোই।’ খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর উৎসাহে অনুপ্রাণিত আরিফুল বললেন, ‘‘রিয়াদ ভাই আমাকে বলেছেন, ‘কে আউট হলো আর কে না হলো, তোর সেটা জানার দরকার নাই। তুই শুধু ম্যাচ শেষ করে আসবি।’ আমার তাই লক্ষ্য, ম্যাচের শেষ পর্যন্ত খেলা। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১০-১২ রান দরকার হলেও আমার পক্ষে ফিনিশ করা সম্ভব।’’

৮ ডিসেম্বর বিপিএলের এলিমিনেটর ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এ ম্যাচে হেরে যাওয়া দল টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়বে। জয়ী দল খেলবে কোয়ালিফাইয়ার-২ ম্যাচে।

একই দিন অপর ম্যাচে কোয়ালিফাইয়ার-১ এ মুখোমুখি হবে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা দুই দল। এ ম্যাচের জয়ী দল সরাসরি ফাইনালে খেলবে। হেরে যাওয়া দল কোয়ালিফাইয়ার-২ ম্যাচ খেলবে। ১০ ডিসেম্বর কোয়ালিফাইয়ার-২ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বিপিএলের ফাইনাল হবে ১২ ডিসেম্বর। ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে রয়েছে।