ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● কুমিল্লায় দাঁড়িয়ে থাকা একটি কভার্ডভ্যানকে পেছন থেকে ধাক্কা দেওয়ার পর ট্রাক থেকে ছিকটে পড়ে এর চালকের সহকারী নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছে আরও দু’জন। সদর দক্ষিণের হাড়াতলি এলাকার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে ময়নামতি হাইওয়ে পুলিশের ওসি মাহবুবুর রহমান জানান।

নিহত আরাফাত রহমান রিফাত (৩২) নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে। আহত কভার্ডভ্যান চালকের সহকারী ও ট্রাক চালককে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওসি মাহবুবুর বলেন, “ট্রাকের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি কভার্ডভ্যানকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এ সময় তার সহকারী ট্রাক থেকে ছিটকে রাস্তায় পড়ে যায়। পরে ওই ট্রাকের চাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন তিনি।” খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে নিহতের লাশ এবং ট্রাক ও কভার্ডভ্যান উদ্ধার করে বলে জানান তিনি। এ ঘটনায় কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

এদিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মিরসরাইয়ে দুর্ঘটনায় কুমিল্লার দু’জনসহ মোট তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দু’জন। নিহতদের মধ্যে দু’জন কুমিল্লার বরুড়া ও চান্দিনা উপজেলার সবজি ব্যবসায়ী। আহত দু’জনও সবজি ব্যবসায়ী।

চট্টগ্রামে সবজি বিক্রির পর পিকআপ ভ্যানযোগে কুমিল্লা ফেরার পথে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে তাদের গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে গেলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে দু’জনের পরিচয় জানা গেছে। এরা হলেন- বরুড়া উপজেলার খোশবাস ইউনিয়নের শাহাপুর গ্রামের জীবন গাজী বাড়ির মৃত ইজ্জত আলীর ছেলে রব মিয়া (৫০) ও চান্দিনা উপজেলার বরকইট ইউনিয়নের তেওনাই গ্রামের আব্দুল হকের ছেলে ছিদ্দিকুর রহমান (৫২)। অপরজন পিকআপ ভ্যানের চালক ছিলেন জানা গেলেও তার পরিচয় বিস্তারিত জানা যায়নি।

খোশবাস ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মোসলেম উদ্দিন জানান, নিহত রব মিয়ার মরদেহ বাড়িতে আনা হয়েছে।

রোববার রাতে সবজি বিক্রির উদ্দেশ্যে ওই তিনজনসহ মোট পাঁচজন চট্টগ্রাম যান। সবজি বিক্রি করে ফেরার পথে মিরসরাই পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের পিকআপ ভ্যানটি রাস্তার পাশে পড়ে যায়। এসময় প্রায় দুমড়ে-মুচড়ে যায় গাড়িটি।