এক চুলও ছাড় দিতে নারাজ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

কুমিল্লার বার্তা ডেস্ক ● লিগ পর্বে তিন ম্যাচ বাকি থাকতেই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শেষ চার নিশ্চিত হয়ে গেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের। ২০১৫ সালের চ্যাম্পিয়নরা তাই আগামী তিন ম্যাচে কিছুটা পরীক্ষা-নিরীক্ষার চিন্তা করতে পারে বলেই মনে হচ্ছিলো। কিন্তু দলটির কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন শুক্রবার অনুশীলনের ফাঁকে জানালেন, এক চুলও ছাড় দিতে নারাজ তারা।

২০১৫ সালে সালাউদ্দিনের কোচিংয়েই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো কুমিল্লা। পরের বছর অবশ্য সুবিধা করতে পারেনি তারা। কোচ হিসেবে ছিলেন না সালাউদ্দিনও। এক বছর পর কুমিল্লায় ফিরেই তাদেরকে দ্বিতীয় শিরোপার স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তিনি।

কুমিল্লার সঙ্গে জুটি বাঁধলেই সফলতা পাওয়ার রহস্য নিয়ে সালাউদ্দিন বলেন, ‘কোনো রহস্যই আসলে নেই! আমি যতোবারই বিপিএলে কোচিং করিয়েছি, অন্তত সেমিফাইনাল পর্যন্ত খেলেছি। সুতরাং এবারের আসরে কুমিল্লার হয়ে যতোটা সফলতা এসেছে তা আসলে তেমন কিছুই না। আমরা যদি ফাইনালে না যেতে পারি, এই সফলতার আসলে কোনো মানেই নেই।’

কুমিল্লা যেভাবে খেলছে, তাতে তাদের ফাইনালে না যাওয়াটা বিস্ময়করই হবে। শেষ চার নিশ্চিত করার পর লিগ পর্বের বাকি তিন ম্যাচ নিয়েও সালাউদ্দিনকে এতো বেশি সিরিয়াস মনে হলো যে, তিনি হয়তো শিরোপা ছাড়া অন্য কিছুর কথা ভাবছেনই না।

তিনি বলেন, ‘শেষ চার নিশ্চিত হলেও আমরা প্রতিটি ম্যাচ নিয়েই সিরিয়াস।’

তিনি জানান, এ ছাড়া আসলে কিছু করারও নেই। কারণ একটা দল যে কোনো সময় তাদের ছন্দটা হারিয়ে ফেলতে পারে। লিগের এই পর্যায়ে সেটা আমরা চাই না।’

সালাউদ্দিন যেটা চান না, সেটা হওয়ার সম্ভাবনাও আসলে কম। কারণ স্থানীয় ও বিদেশি মিলিয়ে তার দলের ভারসাম্য বিপিএলের অন্য ছয় দলের তুলনায় বেশি। ফলে এক বা দুই জন খারাপ করলেও ভালো করার মতো আছে আরো বেশি ক্রিকেটার। কোচ হিসেবে তার জন্য যা স্বস্তিরই বিষয়।

সালাউদ্দিনকে সবচেয়ে বেশি স্বস্তি অবশ্য দিচ্ছেন দেশীয়রা। তিনি বলেন, ‘বোলাররা খুব ভালো পারফর্ম করছে। বিশেষ করে স্থানীয়রা। তাদের পারফর্মের কারণে বিদেশি খেলোয়াড়দের উপর চাপটা কম পড়ছে। আমি চাই স্থানীয় বোলাররা যাতে তাদের এই ধারাটা ধরে রাখতে পারে।’